কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয়? উপস্থাপনা কৌশল

কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় আপনি জানেন কি? বা উপস্থাপক কে? যিনি একটি অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন তিনিই উপস্থাপক অথবা উপস্থাপিকা। উপস্থাপকের কাজই হচ্ছে উপস্থাপনা করা। স্কুল, কলেজ বা অন্য কোথাও একটি অনুষ্ঠান পরিচালনা করার ক্ষেত্রে প্রধান ভূমিকা থাকে একজন উপস্থাপকের। তাই কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় উপস্থাপনা করার আগে সে বিষয়ে জানা অত্যন্ত জরুরি।

একজন উপস্থাপকের কাজ কি সে বিষয়ে একজন উপস্থাপকের যথেষ্ট অবগত থাকতে হয়। শুধু উপস্থাপনা শুরু করাই না বরং সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানটি কিভাবে সুন্দরভাবে সম্পন্ন হবে সেই বিষয়টি মাথায় রাখতে হয়।

আর এটি সম্পন্ন করতে উপস্থাপনার কয়েকটি স্টেপ পার করতে হয় একজন উপস্থাপকের।

আজকে আমরা একটি অনুষ্ঠানের সার্থক উপস্থাপনার সকল স্টেপ সম্পর্কে জানবো। জানবো কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয়, কিভাবে দর্শকদের হতবাক করতে হয়, কিভাবে দর্শকদের ভাবনার জগতে নিয়ে যেতে হয়, কিভাবে দর্শকদের বিরক্ত দুর করে পুরো উপস্থাপনের সময় জুড়ে তাদের চাঙ্গা রাখতে হয়।

চলুন জেনে নেওয়া যাক একটি সার্থক উপস্থাপনা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আদ্দপান্থ সবকিছু।

Table of Contents

কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয়? উপস্থাপনা কৌশল

উপস্থাপনা কৌশল
উপস্থাপনা কৌশল

উপস্থাপনার শুরু থেকেই দর্শকদের মনোযোগ সম্পৃক্ত রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দর্শকদের খুশির সাথে অনুষ্ঠান সমাপ্ত করা একপ্রকার সফল উপস্থাপনার উদাহরণ হতে পারে। আর উপস্থাপনা শুরু করার কিছু কৌশল রয়েছে যা অবশ্যই একজন উপস্থাপকের ফলো করা দরকার। কৌশলগুলো হচ্ছেঃ

উপস্থাপনার শুরুতে দর্শকদের অবাক করা

একজন উপস্থাপকের মূল লক্ষ্য হচ্ছে তার অনুষ্ঠানের দর্শকদের যেভাবে হোক মনযোগী রাখা, যেন তারা উপস্থাপকের কথা শুনতে সর্বদা উৎসুক হয়ে থাকে, এটি একজন ভালো উপস্থাপনা কৌশল।

কারণ যে উপস্থাপক দর্শকদের যত বেশি মনযোগী রাখতে পারবে বিভিন্ন টেকনিকের মাধ্যমে সেই উপস্থাপক ততই সফল হবে তার উপস্থাপনার ক্যারিয়ারে।

মনে রাখবেন কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় এই কাজে স্থান, কাল ভেবে আপনাকে ভিন্ন ভিন্ন ভাবে নিজেকে প্রস্তুত করতে হবে।

তাই বিভিন্ন ভাবে দর্শকদের অবাক করে মজা বা আনন্দ দিয়ে ধরে রাখতে হবে। দর্শকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করার অনেকগুলো উপায় আছে।

উদাহরণস্বরূপঃ অনুষ্ঠানের শুরুতে একটি মজার ভিডিও দেখিয়ে শুরু করা যেতে পারে। শ্রোতা দর্শকদের সাথে কথা দিয়ে শুরু করা যেতে পারে।

অনুষ্ঠান ভেদে কোনো  মহাজ্ঞানীদের বাক্য কিংবা কোন প্রবাদ দিয়ে শুরু করতে পারেন। আবারঅনুষ্ঠান ভেদে প্রথমেই দর্শকদের চাওয়াকে প্রকাশ করে প্রথমেই দর্শকদের দৃষ্টিতে আপনার প্রতি একটি সফট কর্নার তৈরি করতে পারেন।

যেভাবেই হোক একজন উপস্থাপক হিসেবে উপস্থাপনার মঞ্চে আপনার প্রতহ্ম চাওয়া থাকবে দর্শকরা যেন যেন আপনার মুখের ডিকে অধির আগ্রহ নিয়ে বসে থাকে কিছু শোনার জন্য।

এজন্য আপনাকে শুরুতা করতে হবে ইউনিক ভাবে, যাতে প্রত্যেকটি দর্শকের রিদয়ে ছুয়ে দেয়। আপনার চাওয়া থাকতে হবে দর্শকরা নিযুক্ত থাকুক কারণ তারা আপনার উপস্থাপনার প্রথমটুকু পছন্দ করেছে। 

দর্শকদের “কল্পনা করতে” বা ভাবতে বলুন

আপনার শ্রোতাদের কোনো একটি বিষয়ে কল্পনা করতে বা ভাবতে বলুন। তাদের কল্পনা করাতে এবং আপনার লক্ষ্যে ব্যবহার করতে পারলেই আপনি তাদের মধ্যে আবেগ ফুটিয়ে তুলতে পারবেন।

কারণ এই উপস্থাপনা কৌশল টি কিছুটা আবেগ জাগিয়ে তুলতে সাহায্য করে। আর বিষয় যদি হয় আবেগের তাহলে আর কথাই রইলো না।

এক্ষেত্রে আপনি নিজের আবেগ অনুভবের সাথে সম্পৃক্ত রেখে কাজটি করতে পারেন।

কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় এই নিয়মে আপনাকে বুজতে হবে দর্শক আবেগি হইলো কি না তা বুঝতে পারবেন যখন দেখবেন লোকেরা শুনতে থাকবে কারণ এখন আপনি যা বলছেন তাদের ভিতরে একই বিষয়ে চিন্তা হচ্ছে। যেতা তাদ্রকে আবেগি করতে পারার অন্যতম উপায়।

ভবিষ্যতে – অতীতে আপনার উপস্থাপনা শুরু করুন

ইচ্ছাকৃত অলঙ্কারশাস্ত্র হলো যখন বক্তা সম্ভাব্য ভবিষ্যতের কথা বলে শ্রোতাদের পদক্ষেপ নেওয়ার চেষ্টা করে থাকেন।

এটি রাজনীতিবিদরা প্রায়শই এই কৌশলটি ব্যবহার করেন। এমন কৌশলের একটি সুপরিচিত উদাহরণ হল মার্টিন লুথারের “আমার একটি স্বপ্ন” বক্তৃতাটি।

উপস্থাপক হিসেবে অতীত সম্পর্কে কথা বলে দর্শকদের কাছ থেকে অনুরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করতে পারেন। এখানেও একজন উপস্থাপকের সার্থকতা লুকিয়ে আছে। তাই কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় তা ভালো ভাবে জানুন।

যেগুলি করা হয়েছিল ভালো কিংবা যেগুলি কাজ করেনি সেগুলি থেকে পাঠগুলি ব্যবহার করতে পারেন৷

উদাহরণস্বরূপঃ আপনি শ্রোতাদের মনে করিয়ে দিতে পারেন যে কখন দেশটি অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ হয়েছিল অথবা কখন ভুল করা হয়েছিল এই বিষয়ে। যার ফলে দেশটি অর্থনৈতিক অস্থিরতার সম্মুখীন হয়েছিল সেই সময়ে।

উপস্থাপনার ডায়লগ

কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয়
কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয়

একজন উপস্থাপকে সব সময় তার উপস্থাপনার ডায়লগ এর দিকে নজর দিতে হবে। কেননা কোন বিষয়কে সঠিকভাবে উপস্থাপন করার জন্য উপস্থাপনের কৌশল হিসেবে ডায়ালগ মানে কথার মালা সঠিকভাবে সাজানো অত্যন্ত জরুরী।

কিভাবে প্রবাদ উদ্ধৃত করবেন

কাউকে উদ্ধৃত করার কথা বিবেচনা করলে একটি শক্তিশালী খোলার বাক্য তৈরি করতে সংগ্রাম করুন। এখন আপনাকে বলছি কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় জেনে থাকলে, এখন আরও কিছু টিপস জেনে নিন।

বিশিষ্ট জনদের উদ্ধৃতি গুলি পড়ুন জানুন এবং আপনার উপস্থাপনায় যুক্ত করুন।

আপনি যদি স্লাইড ব্যবহার করেন তাহলে উদ্ধৃতি দেওয়ার সময় পাঠ্যের পরিবর্তে একটি ফটো অবশ্যই দেখাবেন। এর মাধ্যমে বুঝতে দর্শকদের সাহায্য করবে।

১) উদ্ধৃতি বুঝুন

২) উক্তিটি মনে রাখবেন

৩) একটি বৃহত্তর প্রভাব জন্য তাদের কল্পনা নিযুক্ত 

উপস্থাপনায় কিভাবে নিজের ব্যক্তিগত কিছু শেয়ার করবেন?

উপরে উল্লিখিত হিসাবে, শ্রোতারা গল্প শুনে উপভোগ করেন। এবং যখন গল্পটি সরাসরি আপনার, বক্তা সম্পর্কে হয় তখন তারা আরও বেশি আগ্রহী হয়।

এর কারণ তারা আপনার মানবিক দিকটি আপনার নিজের মধ্যে দেখতে পায়। তাই কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় এখানে নিজের সম্পর্কে গুছিয়ে বলার চেষ্টা করুন।

আপনার জীবনে যে ভুল করেছেন বা যখন জীবন ঠিকঠাক চলছিল না সে সম্পর্কে একটি গল্প বলার কথা বিবেচনা করুন।

যদি আপনার উপস্থাপনার লক্ষ্যের সাথে প্রাসঙ্গিক হয় তবেই এটি করুন। লোকেরা এটির সাথে সম্পর্কিত হবে কারণ আমরা সকলেই কম বেশি ভুল এবং ব্যর্থতার অভিজ্ঞতা পেয়েছি।

শ্রোতারা আপনার সাথে যত বেশি সম্পর্কযুক্ত, তত বেশি তারা জড়িত থাকবে আপনার এই কথা শ্রবনে।

ই মেইল পাঠানোর নিয়ম কি?

অন্যভাবে চিন্তা করলে আপনার জীবনের গল্পগুলো হাস্যরসাত্মক ভাবেও বলা যেতে পারে যদি এটি আপনাকে আরও স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে এবং আপনি একটি ব্যক্তিগত গল্প প্রকাশ করছেন বলে একটি রসিকতা বলার তুলনায় ভুল ব্যাখ্যার সম্ভাবনা অনেক অনেক কম থাকে।

আমি মনে করি কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় এতক্ষণে তা সম্পূর্ণ বুঝতে পারার কথা।

উপস্থাপনায় যে ভুল করা যাবে না

সব কাজে কিছু বিষয় আছে যা এড়িয়ে চলতে হয়, তেমনি উপস্থাপনা করার সময়ও।

চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় টপিকের মধ্যে জেনে নেই যে ভুল উপস্থাপনায় ভুলেও করা যাবে না।

নিয়মিত অনুশীলন বা প্রাকটিস না করা

কোনো ভাবেই নিয়মিত অনুশীলন ছাড়া হঠাৎ কোনো ব্যক্তি উপস্থাপনার মঞ্চে এসে সাবলীলভাবে মানসিকভাবে উপস্থাপন করতে পারবে।

একজন ব্যক্তি যেকোনো বিষয়ে যত ভালো অভিজ্ঞ হন না কেন অনসশই তাকে কাজটি করার আগে যথেষ্ট প্রাকটিস করতে হবে।

উপস্থাপনা করার জন্য সঠিক ড্রেস নির্বাচন না করা

অবশ্যই উপস্থাপনা করার আগে অনুষ্ঠানের কোয়ালিটির উপর নির্ভর করে ড্রেস নির্বাচন করতে হবে।

উপস্থাপনা করার সময় ড্রেস অনেক বড় ভূমিকা রাখে। তাই কোনোভাবেই ভুল ড্রেস নির্বাচন করা যাবে না।

উপস্থাপক হিসেবে নিজেকে ভুলে না যাওয়া

উপস্থাপকের একমাত্র লক্ষ্য দর্শকদের অন্তরে জায়গা করে নেওয়া। সেক্ষেত্রে শুধু উপস্থাপক হিসেবেই নয়।

বরং একজন ব্যক্তি হিসেবে নিজেকে কোনোভাবেই ভুলে গিয়ে উপস্থাপনা করা যাবে না। নিজেকে মনে জিবিত রেখেই সঠিক ভাবে কাজগুলো করতে হবে।

অতিরিক্ত সময় না বাড়ানো

আপনাকে যদি কেউ বসিয়ে রেখে অযাচিত কথা শুনাতে থাকে তাহলে আপনার কেমন লাগবে?

এটি ভেবেই দর্শকদের অযাচিত কথার জালে আটকে রাখবেন না। কথা সর্ট করে বলতে হবে, ছোট ছোট বাক্য ব্যাবহার করতে হবে। কোনোভাবেই কথা লং করার মানসিকতা রাখা যাবে না।

বাংলা ইংরেজি মিলিয়ে না বলার চেষ্টা করা

সবসময় চেষ্টা করতে হবে দর্শক অনুযায়ী যেকোনো একটি ভাষায় সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানটি করার।

  • এবং বইয়ের ভাষায় উপস্থাপনা করা খুবই জরুরি।
  • কোনো আঞ্চলিক ভাসা ভুলেও প্রয়োগ করা যাবে না।
  • প্রয়োজনে উদাহরণ স্বরূপ কিছু ইংরেজি শব্দ ব্যাবহার করা যাবে।

ভুল তথ্য না দেওয়া

আপনি কতগুলো তথ্য দিতে পারলেন সেতা বড় কথা নয়। বরং বড় কথা হচ্ছে কতগুলো সঠিক তথ্য দিতে পারলেন।

এই বিষয়ে না জানলে স্কিপ করুন, কেননা আপনার। কিন্তু নিজেকে প্রমানের জন্য কখনোই ভুল তথ্য দিবেন না।

মনে রাখবেন ভুল তথ্য দেওয়া এক ধরনের যেমন অপরাধ তেমন নিজের নাম খারাপ করা হয় এতে।

বিশিষ্ট উপস্থাপকদের উপস্থাপনা কৌশল থেকে কিছু শিখুন

প্রিয় পাঠক কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় এর একটি অংশে আপনাকে বলবো আপনি বর্তমান বিশ্বে জনপ্রিয় উপস্থাপক এর উপস্থাপনা কৌশল গুলো থেকে নিজস্ব উপস্থাপনার কৌশল গুলো কে পর্যবেক্ষণ করে সম্প্রসারণ করুন।

এজন্য আমি আপনাকে বিশিষ্টজনদের উপস্থাপনার কৌশল গুলো বেশি বেশি দেখার জন্য অনুরোধ করবো।

উৎসব ভাতা প্রদানের নিয়ম

কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয়?

উপস্থাপনা শুরু করতে প্রথমেই উপস্থাপনার ডায়লগ নির্ধারণ করুন, তারপর স্থান কাল ভেদে আজকের প্রোগ্রামে উপস্থাপনা কৌশল কি হবে তার একটি রূপরেখা তৈরি করুন। এখন আপনার উপস্থাপনার মধ্যে সেগুলো ফুটিয়ে তুলুন সঠিক বাচনভঙ্গি ও শব্দচয়নের মাধ্যমে।

উপস্থাপনা নিয়ে সর্বশেষ

আজকের পোষ্টে আমরা জানতে পেরেছি কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় এই বিষয়ে বিস্তারিত। জেনেছি একজন উপস্থাপকের মূল লক্ষ্য কি হওয়া উচিত। সর্বশেষ জেনেছি কোন ভুল গুলো উপস্থাপনায় সম্পূর্ণ এর‍্যে চলতে হবে।

উপরের সার্বিক বিষয়গুলো মেনে চললে একজন উপস্থাপক তার উপস্থাপনার শুরুটা আরও সহজ সুন্দর ইউনিক করতে পারবেন বলে আমি মনে করি।

আর একজন উপস্থাপকই বুঝতে পারেন অন্যান্য উপস্থাপকদের থেকে নিজের উপস্থাপনা সহজ সুন্দর ইউনিক হওয়া কতটা সাফল্যের।

আশা করছি কিভাবে উপস্থাপনা শুরু করতে হয় এই বিষয়ে আপনাকে যথেষ্ট ক্লিয়ার ধারনা দিয়ে আপনার সাহায্য করতে পেরেছি।

এরপরেও এই বিষয়ে আরও কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করে জানান। আমাদের প্রতিনিধি আপনার কমেন্টের উত্তর দিবো।

নিয়মিত বিভিন্ন বিষয়ে আর্টিকেল পড়ার জন্য আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন। চোখ রাখুন আমাদের ব্লগের ফেসবুক পেজে।

Leave a Comment